মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
নির্বাচন নিয়ে তৎপর ইইউ
বাহরাম খান
Published : Wednesday, 14 February, 2018 at 10:29 PM

চলতি বছরের শেষের দিকে অনুষ্ঠিতব্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিদেশি তৎপরতা শুরু হয়ে গেছে। গত কয়েকদিনে ঢাকায় সফররত ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্টের সদস্যরা সরকারের প্রতিনিধি, নির্বাচন কমিশন, বিএনপি, জাতীয় সংসদের স্পিকারসহ নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করে মতবিনিময় করেছেন। 

সম্প্রতি দুই ভাগে বাংলাদেশ সফরে আসা ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সদস্যরা পরবর্তী সংসদ নির্বাচন সব দলের অংশগ্রহণে সুষ্ঠু অবাধ ও নিরপেক্ষ দেখতে  চেয়েছেন। বুধবার রাজধানীর গুলশানে অবস্থিত ইইউ দূতাবাসে আনুষ্ঠানিক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ ইচ্ছার কথা জানান ইউরোপীয় ইউনিয়নের সংসদীয় প্রতিনিধি দলের নেতা জিন ল্যাম্ববার্ট। ঢাকাস্থ ইইউ রাষ্ট্রদূত রেনসিয়ে টিয়েরিঙ্ক এবং ইইউ সদস্য ওয়াল্টার মাসুর এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনের আগে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করে ইইউ প্রতিনিধি দল। সেখানে অন্যান্য আলোচনার সঙ্গে কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আগামী সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের প্রসঙ্গ তোলেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা। জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা তাদের বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারা-না পারার বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের কিছুই করার নেই।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ কথা জানান। সিইসির বরাত দিয়ে কমিশন সচিব বলেন, আদালত যদি খালেদা জিয়াকে নির্বাচনের অনুমতি দেন, তাহলে ইসির কিছু করার নেই। আর যদি আদালত উনাকে অনুমতি না দেন, তাহলেও ইসির কোনো ভ‚মিকা থাকবে না। কমিশন সংবিধান ও আইন অনুযায়ী সবকিছু করবে। ইসি সচিব আরও জানান, প্রতিনিধি দল মূলত আমাদের কাছে নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চেয়েছে। নির্বাচনে কমিশনের খরচের টাকা কে বহন করে জানতে চেয়েছে। আমরা বলেছি, নির্বাচন কমিশনের চাহিদা অনুযায়ী তা সরকার বহন করে থাকে।

বৈঠক শেষে ইইউ প্রতিনিধি দলের নেতা জ্যঁ ল্যামবার্ট সাংবাদিকদের বলেন, ইইউ বাংলাদেশে একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখতে চায়। ইসিকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে হবে। স্বাধীন ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনের বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে আলোচনা হয়েছে। আগামী নির্বাচনে যাতে সর্বোচ্চসংখ্যক ভোটার ভোট দিতে পারেন এবং সব দল নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে পারে, সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মামলার বিষয়টি আদালত নিষ্পত্তি করবে।

এদিকে বুধবার সন্ধ্যায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের দূতাবাসে হওয়া সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের করা প্রশ্নের জবাবে খালেদা জিয়ার বন্দিদশা সম্পর্কে জিন ল্যাম্ববার্ট বলেন, এটি একটি জটিল প্রক্রিয়া। বিচারব্যবস্থা নিয়ে  কিছু বলা আমাদের এখতিয়ারের মধ্য পড়ে না। তিনি বলেন, ম্যাডাম জিয়ার পার্টি একটি চ্যালেঞ্জের মুখে। আমরা বিষয়টি ইসিতে আলোচনা করেছি।
 
রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে জিন ল্যাম্ববার্ট বলেন, এটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় উদ্বাস্তু সংকট। বাংলাদেশ সরকার তাদের আশ্রয় দিয়ে চমৎকার কাজ করেছে। খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থানের ব্যবস্থা করা একটি জটিল বিষয়। বর্ষা আসন্ন। এখানে দ্বিতীয় বড় সংকটে পড়ুক তা কাম্য নয়। রাখাইনে মানবাধিকার সংস্থাগুলো অবাধ যাতায়াত নিশ্চিত না করে রোহিঙ্গাদের তাদের দেশে ফিরে যাওয়া সম্ভব নয়। মিয়ানমার দিক থেকে এখন মানবাধিকার কর্মীদের অবাধ বিচরণে বাধা দেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের দীর্ঘ সময় ধরে রাখা সম্ভব নয়। মানব পাচার এবং চরমপন্থা উৎপত্তি হতে পারে। ইইউ এজন্য কী করতে পারে, তা নিয়ে ভাবতে হবে। এটি বাংলাদেশের বাড়তি বোঝা। এ বোঝা কমাতে বিশ্বের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি সরেজমিন পর্যবেক্ষণের জন্য ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের মানবাধিকারসংক্রান্ত ১১ সদস্যের প্রতিনিধি দল কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে সোমবার। ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা রোহিঙ্গাদের সঙ্গে ওই সময় কথা বলেন। তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা যাতে মিয়ানমারে নাগরিকত্ব পান, সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। 

অন্যদিকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে গতকাল দুপুরে হওয়া বৈঠকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী। তিনি জানান, চুক্তি অনুযায়ী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নেবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ইইউর সংসদীয় দলের প্রতিনিধিদের বৈঠকটি রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় অনুষ্ঠিত হয়।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম আজকালের খবরকে বলেন, ইইউ সংসদীয় দলের ১১ জন প্রতিনিধি রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর পরিস্থিতি নিজের চোখে দেখতে গত রবিবার বাংলাদেশ সফরে আসেন। তারা মিয়ানমার সফরেও যাবেন। ইইউ সংসদীয় দলের প্রতিনিধিরা কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবিরগুলো ঘুরে ভুক্তভোগীদের সঙ্গে আলাপ করেছেন। রোহিঙ্গাদের নির্যাতনের চিত্র জানার পর সংসদীয় দলের সদস্যরা মিয়ানমার সরকারের ওপর হতাশ হয়েছে।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ইইউ সংসদীয় দলের প্রতিনিধিরা আমাকে বলেছেন, তারা যা দেখে যাচ্ছেন, দেশে ফিরে গিয়ে ইউরোপিয়ান সংসদে তা পুঙ্খানুপুঙ্খ তুলে ধরবেন। রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পক্ষে ইইউর সমর্থন অব্যাহত থাকবে। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিরাপদ করতে মিয়ানমারের প্রতি তাদের চাপ অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কেও এই বিষয়ে সোচ্চার হতে আহ্বান জানাবে তারা।

ইইউ সংসদীয় দলের প্রতিনিধিরা বলেছেন, তাদের সংসদে রোহিঙ্গা ইস্যুতে নতুন করে আরও একটি রেজুলেশন পাস করবে। যাতে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর অধিকার নিশ্চিতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে শক্ত পদক্ষেপ নেওয়া যায়। ইউরোপীয় সংসদের মানবাধিকার সংক্রান্ত সাব-কমিটির চেয়ারম্যান ইতালির এমপি পিয়েরা এন্তোনিও পানজেরি বলেন, মানবাধিকারের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা রয়েছে। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন যাতে নিরাপদ হয়, সেজন্য আমরা যথাযথ উদ্যোগ নেব।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি দলটি বিভিন্ন পর্যায়ে দেখা-সাক্ষাৎ করলেও সরকারি দলের সঙ্গে এখনো কোনো বৈঠক করেনি। আওয়ামী লীগের সিনিয়র কয়েকজন নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করলেও তাদের সঙ্গে বৈঠক হবে কিনা তেমন কোনো জানাতে পারেননি। জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আক্তার আজকালের খবরকে বলেন, বিদেশি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে দেখা করে বিএনপি বিভিন্ন উদ্দেশ্য হাসিলের চেষ্টা করছে। এ বিষয়ে আমাদের কোনো আগ্রহ নেই। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ইইউ প্রতিনিধি দল যদি আওয়ামী লীগের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সাক্ষাৎ চায় সেক্ষেত্রে আমরা দেখা করব। তবে এখনো পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

এ ছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়নের ঢাকার দূতাবাস থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, বাংলাদেশে বেশ কিছু ক্ষেত্রে খুব ভালো উন্নতি করেছে। কিন্তু শ্রম অধিকার, মানবাধিকার, মত প্রকাশের স্বাধীনতা, জমায়েত হওয়ার অধিকার, গুম, বিচার বহিভর্‚ত হত্যাকাণ্ডসহ নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতার বিষয়গুলোতে উঠা অভিযোগ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করতে হবে। বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে এসব বিষয় গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনায় নেওয়ার দাবি রাখে।

আজকালের খবর/এসএ



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : আজিজ ভবন (৫ম তলা), ৯৩ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০।
ফোন : +৮৮-০২-৪৭১১৯৫০৬-৮।  বিজ্ঞাপন- ০১৯৭২৫৭০৪০৫, ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সাকুলের্শন- ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : newsajkalerkhobor@gmail.com, addajkalerkhobor@gmail.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com