মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতেই থাকছে বিএনপি
মোজাম্মেল হক তুহিন
Published : Wednesday, 14 February, 2018 at 10:07 PM, Update: 15.02.2018 8:14:36 PM

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি রাজপথেও সক্রিয় রয়েছে বিএনপি। এরইমধ্যে বুধবার টানা পাঁচ দিনের কর্মসূচি শেষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার নতুন কর্মসূচি ঘোষণার কথা জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। টানা পাঁচ দিনের কর্মসূচির শেষ দিন গতকাল বুধবার অনশন শেষে রাতে গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান তিনি। 

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ রাতে আজকালের খবরকে বলেন, ‘মিথ্যা ও ভুয়া নথির মাধ্যমে সাজানো মামলায় খালেদা জিয়াকে সরকার কারাগারে বন্দি করেছে। এর প্রতিবাদে বিএনপি শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে। এরইমধ্যে পাঁচ দিনের কর্মসূচি শেষ হয়েছে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সঙ্গে সিনিয়র নেতারা পরামর্শ করে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।’

সেই কর্মসূচির ধরন কেমন হবে? এর জবাবে তিনি বলেন, ‘সেটির ধরন কী হবে তা এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। তবে নতুন কর্মসূচি নিয়মতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ হবে সেটি বলা যায়।’

দলের একটি সূত্রে জানা গেছে, বিএনপির শীর্ষ নেতাদের ধারণা ছিল রায় ঘোষণার পরপরেই দ্রæত সময়ে খালেদা জিয়ার রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিলের আবেদন করা যাবে। সেই অনুযায়ী খালেদা জিয়া জেলে যাওয়ার পর প্রথম দফা দুই দিন ও পরবর্তীতে টানা তিন দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছিল। তারা আশা করেছিলেন, এরইমধ্যে আইনি প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে। কিন্তু গত সাত দিনেও রায়ের সার্টিফাইড কপি না পাওয়ায় আইনি প্রক্রিয়া শুরু করা যায়নি। আজ বৃহস্পতিবার রায়ের কপি পাওয়ার কথা রয়েছে। 

সূত্রটি আরও জানায়, বৃহস্পতিবারের মধ্যে রায়ের কপি পেলে কর্মসূচির ধরন হবে একরকম আর সেটি না হলে কর্মসূচির ধরন হবে কিছুটা কঠোর। তবে সেই কঠোর কর্মসূচির ধরন কী হতে পারে তা নিশ্চিত করতে পারেনি ওই সূত্রটি।

এদিকে খালেদা জিয়ার সাজার রায়ের পর দলের পক্ষ থেকে ঘোষিত কর্মসূচি মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবেই পালন করা গেছে। এসব কর্মসূচিতে নেতাকর্মীদের উপস্থিতিও ছিল উল্লেখ্য করার মতো। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও বিএনপির এসব কর্মসূচিতে যথেষ্ট সহযোগিতা করেছে। অনশন, অবস্থান ও মানববন্ধনের মতো কর্মসূচিতে নিকট অতীতের বিএনপির যে কোনো  সভা-সমাবেশের চেয়েও নেতাকর্মীদের উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি ছিল। এসব চিন্তা করে এই মুহূর্তে একান্ত প্রয়োজন না হলে বিশৃঙ্খল ও কঠোর কর্মসূচির দিকে যাবে না বিএনপি। তারপরেও বর্তমান রাজনৈতিক বাস্তবতা বিবেচনায় দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের পরামর্শেই কর্মসূচি নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দলের একজন ভাইস চেয়ারম্যান আজকালের খবরকে বলেন, ‘বুধবার টানা পাঁচ দিনের কর্মসূচি শেষ হয়েছে। শনিবার থেকে আবারও নতুন কর্মসূচি আসবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বৃহস্পতিবার রায়ের কপি পাওয়ার কথা। সেটি পেলে সম্ভব হলে সেদিনই আপিল করা হবে। অন্যথায় রবিবার আপিল করা হবে। এসব বিষয় বিবেচনায় নতুন কর্মসূচি আসবে।’

অন্যদিকে বিএনপির পাশাপাশি জোটের শরিক দলগুলোও খালেদা জিয়ার মুক্তিতে রাজপথে সক্রিয় হচ্ছে।  বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করা হবে।

কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম আজ রাতে আজকালের খবরকে জানান, সকাল সাড়ে ১০টায় আমরা জোট নেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করব। সেখানে জোটের শরিক দলের নেতারা উপস্থিত থাকবেন।

আজকালের খবর/এসএ




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : আজিজ ভবন (৫ম তলা), ৯৩ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০।
ফোন : +৮৮-০২-৪৭১১৯৫০৬-৮।  বিজ্ঞাপন- ০১৯৭২৫৭০৪০৫, ০১৭০৯৯৯৭৪৯৯, সাকুলের্শন- ০১৭০৯৯৯৭৪৯৮
ই-মেইল : newsajkalerkhobor@gmail.com, addajkalerkhobor@gmail.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com