শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭
চীনে আওয়ামী লীগ-বিএনপি একসঙ্গে তিন দিন
হাবীব রহমান
Published : Wednesday, 6 December, 2017 at 12:31 AM, Update: 06.12.2017 2:09:00 PM

চীনে বিভিন্ন দেশের অর্ধশত রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের কাছে বাংলাদেশের উন্নয়ন ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বের সফলতা তুলে ধরেছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। টানা দুইবারের মতো চীনের রাষ্ট্রপতি এবং দেশটির ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় শি জিনপিংয়ের আমন্ত্রণে আওয়ামী লীগের তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল চীনে যায়। জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে ১২০টি দেশের ৩০০ রাজনৈতিক দলের ৬০০ প্রতিনিধি অংশ নেয়। বাংলাদেশের অপর দুটি দল বিএনপি ও সাম্যবাদী দলের প্রতিনিধি দলও এতে অংশ নেয়। চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির আমন্ত্রণে তিন দিনের বেইজিং সফর শেষে সোমবার দেশে ফিরেছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রতিনিধিরা।

সফরকারী সূত্র জানায়, সাইড লাইনে বিভিন্ন দেশের ক্ষমতাসীন এবং বিরোধী অন্তত ৫০টি দেশের রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের বৈঠক ও চা চক্র হয়। এসব বৈঠকে বাংলাদেশের জন্ম, পঁচাত্তর পূর্ববর্তী সময় এবং পঁচাত্তর পরবর্তীতে দীর্ঘ সময় গণতন্ত্রহীনতা, তারপর অভাবনীয় সব উন্নয়ন ও শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বের কথা তুলে ধরেন আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। দারিদ্র্য দূরীকরণ, বিশুদ্ধ খাবার পানি, শিক্ষা, চিকিৎসা, নারী ক্ষমতায়ন ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়নের বিষয়গুলো তুলে ধরে হয়। সর্বশেষ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংসদ সদস্যদের নিয়ে বাংলাদেশে আয়োজিত আইপিইউ ও সিপিএ সম্মেলনের প্রশংসা করেছেন বিভিন্ন দেশের রাজনৈতিক নেতারা।

এসব বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের পক্ষে জনমত গঠন করেন আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। ইরান, তুরস্ক, আলজেরিয়া, ফিলিস্তিন, নাইজেরিয়াসহ বিভিন্ন মুসলিম দেশ রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের অবস্থানকে সমর্থন করে বাংলাদেশের উদ্যোগের প্রশংসা করেছে। একইভাবে এমন সাইড লাইনের বৈঠকে বাংলাদেশের গণতন্ত্র, দমন-পীড়নের কথা তুলে ধরেছে বিএনপি। দলটিকে বাদ দিয়ে নির্বাচন আয়োজনের বিষয়টিও তারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কাছে তুলে ধরেন।

বিশ্ব রাজনীতিকদের সম্মানে আয়োজিত এবারের বেইজিং সফর রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত ফলপ্রসূ হয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। বাংলাদেশের চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী বলে পরিচিত আওয়ামী লীগ ও বিএনপির শীর্ষ নেতারা তিন দিন একসঙ্গে একই হোটেলে খুবই সৌহার্দ্যপূর্ণ সময় কাটিয়েছেন বলেও জানা গেছে। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বেইজিং সফর থেকে দেশে ফেরা সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া বলেন, আওয়ামী লীগ, বিএনপির নেতারা ও আমরা একই হোটেলে তিন দিন ছিলাম। আমাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয়ে আন্তরিক পরিবেশে আলোচনা হয়েছে। আমাদের পারস্পরিক সম্পর্কটা অত্যন্ত মধুর ছিল বললেও বাড়িয়ে বলা হবে না। দেশে এমন সম্পর্ক দেখা যায় না কেন- এমন প্রশ্নের জবাবে বর্ষীয়ান এ রাজনীতিবিদ কোনো মন্তব্য না করে হেসে ফেলেন।

চীন সফরের বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ নেতা খালিদ মাহমুদ চৌধুরী গতকাল বলেন, সফর খুবই ফলপ্রসূ হয়েছে। চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের আমন্ত্রণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাজনীতিবিদদের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছিল বেইজিং। মূল অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ভারত, মিয়ানমার, কানাডা, কম্বোডিয়া, তুরস্ক, নেপাল, ফিলিস্তিন, সুদান, আফগানিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, কিউবা, অলজেরিয়া, মালেশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেতাদের সঙ্গে আমাদের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হয়েছে। ওইসব বৈঠকে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে আলোচনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসাও করেছেন বিশ্বনেতারা। সবমিলিয়ে তিন দিনের সফরটি আওয়ামী লীগের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ ছিল। 

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সফরকালে বেইজিংয়ের তিয়েন আনমেন স্কয়ারের ৫ তারকা মানের গ্রান্ড হোটেলে ছিলেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রতিনিধিরা। একই সময়ে একই স্থানে সকালের নাস্তা, দুপুর ও রাতের খাবারও খেয়েছেন বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনের চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী দুই দলের শীর্ষ নেতারা। শুধু তাই নয়, তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের বিভিন্ন পর্বের ফাঁকে একসঙ্গে চা চক্রেও অংশ নিতে দেখা গেছে দল দুটির নেতাদের। দুই দলের নেতাদের মধ্যে কথাবার্তাও হয়েছে আন্তরিক পরিবেশে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতাদের পারস্পরিক সম্পর্ক দেখে অনুষ্ঠানে উপস্থিত বাংলাদেশ সাম্যবাদী দলের একজন শীর্ষ নেতা মন্তব্য করে বসেন, চীনের রাজনীতিবিদরা খুব অবাক হয়েছেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপির শীর্ষ নেতাদের মধ্যে এমন হৃদ্যতাপূর্ণ সম্পর্ক দেখে।  

বেইজিং সফরে বাংলাদেশ থেকে তিনটি রাজনৈতিক দল আমন্ত্রণ পায়। আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিত্ব করেন দলটির আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জমির, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল মজিদ হুমায়ুন। অপরদিকে বিএনপির প্রতিনিধি দলে ছিলেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ এবং বিএনপিপন্থি সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ। সাম্যবাদী দলের নেতৃত্বে ছিলেন দলটির সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া। 

সুন্দর আগামীর বিশ্ব গড়ে তুলতে রাজনৈতিক দলের ভ‚মিকা এই থিমের ওপর ভিত্তি করে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। প্রধান অতিথি হিসেবে জিনপিংয়ের উদ্বোধনী ভাষণের পর বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি। আলাপকালে আওয়ামী লীগের একজন প্রতিনিধি জানান, প্রথম অধিবেশনের পরপরই সু চির সঙ্গে কথা হয় আমাদের। সু চির সঙ্গে আলাপে পারস্পরিক সৌহার্দ্যরে মাধ্যমে একটি মানবিক বিশ্ব গড়ে তুলতে সব ধরনের অমানবিকতা ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে বলে জানাই আমরা। জবাবে সু চি আমাদের সঙ্গে একমত পোষণ করে বলেন, মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে আমরা সবসময় সোচ্চার। কিন্তু মিয়ানমারের রাজনৈতিক ইতিহাস আপনারা জানেন। আমাদের গণতন্ত্রের বয়স মাত্র ২০ মাস। এর আগে প্রায় অর্ধশতাব্দী সামরিক শাসন চলেছে মিয়ানমারে। আমার নিজের ওপরও অনেক নির্যাতন এসেছে বিভিন্ন সময়। আমরা আশা করছি, দ্রুততম সময়ের মধ্যেই একটি মানবিক রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্বে প্রতিষ্ঠা পাবে মিয়ানমার। 

ওই সূত্রে আরও জানা গেছে, বাংলাদেশের সঙ্গে মিয়ানমারের চলমান রোহিঙ্গা সংকট নিয়েও আলোচনা হয়েছে অনুষ্ঠানে। তুরস্ক, ফিলিস্তিন, আফগানিস্তান, আলজেরিয়া মুসলিম বিশ্বের নেতারা তাদের বক্তব্যে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের জন্য চীন ও মিয়ানমারকে উদ্যোগী হওয়ার আহŸান জানান। এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে চীনের ক্ষসতাসীন দলের প্রতিনিধিরা জানান, রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে ইতোমধ্যে চীন উদ্যোগ নিয়েছে। সম্প্রতি মিয়ানমারের সেনাবাহিনীপ্রধান চীন সফরে আসেন। সেখানে আলাপকালে রোহিঙ্গা ইস্যুর দ্রুত সমাধানের তাগিদ দেন চীন সরকারের দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা। 

৩০ নভেম্বর বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলটি বেইজিংয়ের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন। তিন দিনের সফর শেষে গত সোমবার সন্ধ্যায় দেশে ফেরেন। অবশ্য বিএনপির প্রতিনিধিরা নিজ খরচে বিমানের বিজনেস ক্লাসে এবং আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিরা ইকনোমি ক্লাসে দেশে ফেরেন বলে জানা গেছে।

আজকালের খবর/এসএ



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : আজিজ ভবন (৫ম তলা), ৯৩ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১০০০।
ফোন : +৮৮-০২-৪৭১১৯৫০৬-৮। বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭৮৭-৬৮৪৪২৪, ০১৭৯৫৫৫৬৬১৪, সার্কুলেশন : +৮৮০১৭৮৯-১১৮৮১২
ই-মেইল : newsajkalerkhobor@gmail.com, addajkalerkhobor@gmail.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত দৈনিক আজকালের খবর
Web : www.ajkalerkhobor.com, www.eajkalerkhobor.com