মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭
বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে প্রথম জন্ম নিল জিরাফ শাবক
গাজীপুর প্রতিনিধি
Published : Friday, 16 June, 2017 at 12:26 PM

গাজীপুরের ইন্দ্রপুরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে প্রথম বারের মতো জন্ম নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকান জিরাফের বাচ্চা। গত মঙ্গলবার সকালে এ বাচ্চাটি জন্ম নেয়। পরে পার্কের পরিচর্যাকারীরা বিষয়টি টের পেয়ে বন বিভাগের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানায়।
 
গতকাল বৃহস্পতিবার পার্কের নির্ধারিত বেষ্টনীতে জিরাফের বাচ্চাটিকে তার মায়ের সঙ্গে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে। মা জিরাফ তার বাচ্চাকে সব সময় আগলে রাখছে। দুজনেই সুস্থ আছে। তবে বাচ্চাটি পুরুষ না মাদি তা এখনো নিশ্চিত করা যায়নি। ঈদের আগে পার্কে জিরাফের পরিবারে নতুন এ সদস্যের আগমনে পার্কের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আনন্দে উদ্বেলিত। নতুন বাচ্চাটিসহ বর্তমানে পার্কে জিরাফের সংখ্যা দাঁড়াল ৯। এর মধ্যে আগে থেকেই আছে তিনটি পুরুষ ও ৫টি মাদি জিরাফ। এর আগে গত ১৭ মে এ সাফারি পার্কের দুটি জিরাফ মারা যায়।
 
বৃহস্পতিবার সকালে পার্কে বেড়াতে আসা দর্শনার্থীরা জিরাফের বাচ্চা দেখতে ভিড় জমালেও তাদের জিরাফের কাছে যেতে দেয়া হচ্ছে না। পার্কের ওয়াইল্ড লাইফ সুপারভাইজার মো. সরোয়ার হোসেন খান জানান, মঙ্গলবার সকালে সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক পরিবেশে জন্ম নেয়া এ শিশু জিরাফটি এখন মায়ের দুধ পান করছে। তবে প্রায় এক সপ্তাহ পরে বাচ্চাটি ঘাস খেতে শুরু করবে। ঘাস  খেলেও পাশাপাশি প্রায় দেড় বছর বয়স পর্যন্ত বাচ্চা তার মায়ের দুধ পান করে থাকে। তাছাড়া অন্য স্বাভাবিক খাবারও সে খেতে থাকবে। এরা প্রাকৃতিক পরিবেশে সাধারণত দল বেধে চলতে ভালোবাসে।
 
তিনি জানান, সাউথ আফ্রিকা থেকে ২০১৩ এবং ২০১৫ সালে দুই দফায় এ সাফারি পার্কে ১০টি জিরাফ আনা হয়। গত ১৭ মে দুইটি জিরাফ অসুস্থ হয়ে মারা যায়। পূর্ণবয়স্ক জিরাফের গড় ওজন ১৬শ’ থেকে ২৪শ’ পাউন্ড এবং বাচ্চা জিরাফের গড় ওজন হয় ১০০-১১৫ পাউন্ড। পূর্ণ বয়স্ক জিরাফের উচ্চতা ১৯ ফুট এবং তাদের জিহ্বার দৈর্ঘ্য আরো দুই ফুট। এরা উঁচুতে থাকা গাছের পাতা বা তৃণ লম্বা জিহ্বা ব্যবহার করে মুখে টেনে নিয়ে খায়। সাধারণত এরা পানি কম খায়। পানি খাওয়ার সময় সামনের পা দুটি ছড়িয়ে দিয়ে মাথা নিচু করে পানি খেয়ে থাকে। সাফারি পার্কে এই প্রথম কোনো জিরাফ প্রাকৃতিক পরিবেশ বাচ্চা জন্ম দিয়েছে।
 
তিনি আরও জানান, বাচ্চাসহ মা জিরাফটিকে নিরাপদ জোনে আলাদা রাখা হয়েছে। অন্তত সাত দিন মা জিরাফটি নিরাপদ জোনে থাকবে। এ সময় তার কাছে কেউ যেতে পারবে না। ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রফেসর ড. আব্দুর রহমানের তত্ত্বাবধানে জিরাফটির দেখাশোনার কাজ চলছে। বর্তমানে মা জিরাফটিকে গাজর, ভুট্টা, ছোলা, তেঁতুল পাতা, কামরাঙ্গা পাতা, অর্জুন গাছের পাতা, আমলকী গাছের পাতা, গ্লুকোজ মিশ্রিত পানি এবং বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন ওষুধ খাওয়ানো হচ্ছে। এছাড়া একজন ভেটেরিনারি ডাক্তারের সঙ্গে দুজন কর্মচারী সার্বক্ষণিক পরিচর্যার জন্য দেয়া হয়েছে। জন্ম নেয়া এ শাবকের কথা বিবেচনা করে জিরাফ এলাকার পাশে বসানো হয়েছে নিরাপত্তা প্রহরা। দিনভর শাবকের সঙ্গে মায়ের সখ্য দেখে বেজায় খুশি পার্কের কর্তাব্যক্তিরা।
 
পার্কে কর্মরত ওয়াইল্ড লাইফ সুপারভাইজার মো. আনিসুর রহমান জানান, জিরাফ সাধারণত  তিন থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে প্রজনন ক্ষমতা লাভ করে। এরা প্রাকৃতিক অবস্থায় ২০ থেকে ২৫ বছর জীবন লাভ করলেও আবদ্ধ অবস্থায় প্রায় ২৮ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকে।
 
সরেজমিন দেখা যায়, জিরাফ এলাকায় এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে হাঁটাহাঁটি করছে সদ্য জন্ম নেওয়া শাবকটি। নানা ভঙ্গিমায় সে নিজের অস্তিত্বের জানান দিচ্ছে। এমনকি বৃহস্পতিবারও পার্কের নিজস্ব বেষ্টনীতে অভিজাত ভঙ্গিমায় চলাফেরা করতে দেখা গেছে মা ও শাবকটিকে। তিনি আরো জানান, আবদ্ধ অবস্থায় জিরাফের শাবক জন্ম দেয়া অনেকটা বিরল ঘটনা। ফলে প্রাণী জগতের ইতিহাসে স্থান করে নিতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক।

আজকালের খবর/আতে


সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি : গোলাম মোস্তফা || সম্পাদক : ফারুক আহমেদ তালুকদার
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : সুমনা গণি ট্রেড সেন্টার, (৪ তলা) প্লট-২, পান্থপথ (সার্ক ফোয়ারা মোড়), ঢাকা।
ফোন : ০২-৫৫০১৩২১৪ ফ্যাক্স : ০২-৫৫০১৩২১৫, বিজ্ঞাপন : ০১৭৮৭৬৮৪৪২৪, সার্কুলেশন : ০১৭৮৯১১৮৮১২
ই-মেইল : newsajkalerkhobor@gmail.com, addajkalerkhobor@gmail.com
Web : www.ajkalerkhoborbd.com, www.eajkalerkhobor.com